আফগানিস্তানে মোতায়েন ব্রিটিশ সেনা

আমেরিকার পাশাপাশি ব্রিটেনও আফগানিস্তান থেকে সেনাদেরকে দেশে ফেরত নেবে। মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে সেনা ফেরত নেয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত ঘোষণা দেয়ার পর ব্রিটিশ সরকার নিজেদের সেনা ফেরত নেয়ার কথা চিন্তা করছে।

আফগানিস্তানে ব্রিটেনের প্রায় ৭৫০ জন সেনা রয়েছে এবং তারা সবাই মূলত মার্কিন সমর্থনের ওপর নির্ভর করে। আফগানিস্তানে যেভাবে মার্কিন ঘাঁটি ও অবকাঠামো রয়েছে সেভাবে ব্রিটেনের কোনো ঘাঁটি না থাকায় ব্রিটিশ সেনারা আফগানিস্তানে টিকতে পারবে না।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আমেরিকার নিউ ইয়র্ক শহরের বিশ্ব বাণিজ্যকেন্দ্র বা টুইন টাওয়ারে কথিত সন্ত্রাসী হামলার পর আমেরিকা ও ব্রিটেন জোটবদ্ধভাবে আফগানিস্তানে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে। এতে এক লাখের বেশি বেসামরিক আফগান নাগরিক এবং ৪৫০ ব্রিটিশ ও ২,৪৮৮ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে।

আফগান অভিযানে এ পর্যন্ত ব্রিটেনের তিন হাজার সাতশ কোটি পাউন্ড ও আমেরিকার ২.৪ ট্রিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়েছে।

বিপুল এই অর্থ ব্যয়ের বিপরীতে তাদের অর্জন কী- সে প্রশ্ন দেশ দুটির সাধারণ করদাতারা তুলতে শুরু করেছেন। যে তালেবানকে উৎখাত করার কথা বলে আমেরিকা ও ব্রিটেন আফগানিস্তানে সামরিক আগ্রাসন চালিয়েছিল এখন সেই তালেবানের শক্তিকে স্বীকার করে তাদের সঙ্গে চুক্তি করে সেনা ফেরত নিতে বাধ্য হচ্ছে আমেরিকা। অন্যদিকে, আফগানিস্তান এখন বিশ্বের প্রধান হেরোইন ও আফিম উৎপাদনের দেশে পরিণত হয়েছে।

 

 

 

 

 

পার্সটুডে

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print