রাজশাহী নগরীর নওদাপাড়া এলাকায় অ্যাম্বুলেন্স-অটোরিকশা সংঘর্ষে দুজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সন্ধ্যা রাতের এ দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- নগরীর শাহমখদুম থানার ভুগরুইল এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে আমিরুল ইসলাম (২২) ও একই থানার বশিরাবাদ দাওয়াতুল ইসলাম আলিম মাদরাসার শিক্ষক আলমগীর হোসেন (৫০)।

আহতরা হলেন- পবা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের রজব আলীর স্ত্রী রওশন আরা বেগম (৪৫), নগরীর চন্দ্রিমা থানার খড়খড়ি এলাকার ইদ্রিস আলীর ছেলে আরিফুল ইসলাম (২০), কুখন্ডি এলাকার আব্বাস আলীর ছেলে আবির হোসেন রাজা (২৪) ও পোড়াপুকুর এলাকার কলিম উদ্দিনের মেয়ে কানিজ ফাতেমা কেয়া (২৬)।

শাহমখদুম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, নওদাপাড়া বাস টার্মিনাল কর্নারে পূর্ব দিক থেকে আসা নওগাঁ প্রাইম হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে পশ্চিম দিক থেকে আসা একটি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোরিকশার ছয়জন গুরুতর আহত হন।

তিনি আরও জানান, আহতের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল জরুরি বিভাগে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। অ্যাম্বুলেন্স ও অটোরিকশাটি জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

 

 

ইউএনবি

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print