হরমুজ প্রণালীর কথিত নিরাপত্তা রক্ষা করার লক্ষ্যে ফ্রান্সের উদ্যোগে ইউরোপীয় দেশগুলোর যে জোট গঠনের চেষ্টা করা হচ্ছে তাতে জার্মানি যোগ দেবে না। বার্লিন বলেছে, ফ্রান্সের এ উদ্যোগের প্রতি রাজনৈতিক সমর্থন থাকলেও এতে সেনা দিয়ে সহযোগিতা করবে না জার্মানি।

জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে দেশটির নিউজ চ্যানেল ডয়েচে ভেলে জানিয়েছে, জার্মানি কেবল তখনই পারস্য উপসাগরের হরমুজ প্রণালীতে সেনা পাঠাবে যখন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ নেয়া হবে।

ফ্যান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লি সম্প্রতি ঘোষণা করেন, ইউরোপীয় দেশগুলোকে নিয়ে হরমুজ প্রণালীর নিরাপত্তা রক্ষা করার লক্ষ্যে একটি সামরিক জোট গঠন করা হচ্ছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে ফরাসি নৌবাহিনীর যে ঘাঁটি রয়েছে সেটিকে কেন্দ্র করে এ জোটের তৎপরতা পরিচালিত হবে বলেও জানান ওই মন্ত্রী।

এর আগে আমেরিকা গত গ্রীষ্মে পারস্য উপসাগর ও হরমুজ প্রণালীর কথিত নিরাপত্তা রক্ষা করার লক্ষ্যে একটি আন্তর্জাতিক সামরিক জোট গঠন করার কথা ঘোষণা করে। এখন পর্যন্ত কেবলমাত্র ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া, আলবেনিয়া, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত ওই জোটে যোগ দেয়ার কথা ঘোষণা করেছে। ফ্রান্স সে সময় আমেরিকার আহ্বানে সাড়া দেয়নি। তবে এখন ফরাসি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলছেন, মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের পাশাপাশি ইউরোপীয় দেশগুলোর জোট হরমুজ প্রণালীতে তৎপরতা চালাবে।

এদিকে ইরান বহুদিন ধরে ঘোষণা করে এসেছে, পারস্য উপসাগর ও হরমুজ প্রণালীর নিরাপত্তা রক্ষা করার জন্য এ অঞ্চলের দেশগুলোই যথেষ্ট। তেহরানের মতে, এ অঞ্চলে পশ্চিমা দেশগুলোর সেনা মোতায়েন করা হলেই বরং পারস্য উপসাগরের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবে।

 

 

 

 

 

পার্সটুডে/এমএমআই

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print