আমেরিকার ক্যালিফোর্য়ানি অঙ্গরাজ্যের ওকল্যান্ড বন্দর

আমেরিকার সঙ্গে প্রথম পর্যায়ের সম্ভাব্য বাণিজ্যচুক্তির আগে মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে আরোপ করা বাড়তি শূল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে চীন। চীনের ইংরেজি ভাষার দৈনিক ‘গ্লোবাল টাইমস’ গতকাল (রোববার) এ খবর দিয়েছে।

দু পক্ষের মধ্যকার ১৭ মাসের বাণিজ্য যুদ্ধের অবসান হবে কিনা তা নিয়ে যখন নানা সংশয় রয়েছে তখন চীনের পক্ষ থেকে এই মনোভাব ব্যক্ত করা হয়েছে।

আমেরিকার সঙ্গে বাণিজ্য আলোচনার ব্যাপারে চীনের যেসমস্ত কর্মকর্তা জড়িত, তাদের একটি সূত্র গ্লোবাল টাইমসকে জানিয়েছেন, চীনা পণ্যের উপর আমেরিকার পক্ষ থেকে যে বাড়তি শূল্ক আরোপ করা হয়েছে এবং শুল্ক আরোপের জন্য আমেরিকা যে পরিকল্পনা করেছে সেগুলো অবশ্যই প্রত্যাহার করতে হবে। এটি হবে চুক্তির গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

চীনা পত্রিকাটি বলেছে, মার্কিন কর্মকর্তারা বেইজিংয়ের এ দাবিকে প্রতিরোধ করে চলেছেন। চীনা কর্মকর্তারা বলছেন, বাড়তি শূল্ক হচ্ছে আমেরিকার হাতের একমাত্র অস্ত্র; এটি প্রত্যাহার করাকে তারা অস্ত্রসমর্পণ বলে বিবেচনা করেন।

‘গ্লোবাল টাইমস’ এর পক্ষ থেকে মার্কিন সরকারের বাণিজ্য বিষয়ক আলোচক প্রতিনিধিদল এবং মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হলে তারা এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চান নি।

গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর মার্কিন সরকার চীনের ১৫ হাজার ৬০০ কোটি ডলার মূল্যের পণ্যের উপর শতকরা ১৫ ভাগ বাড়তি শূল্ক আরোপ করে।

গত মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, আমেরিকা এবং চীন প্রথম পর্যায়ের বাণিজ্যচুক্তির একেবারে দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। এর মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যকার বাণিজ্যযুদ্ধের উত্তেজনা কমে আসবে। তার আগে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং আমেরিকার সঙ্গে বাণিজ্যচুক্তির ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন।

 

 

 

 

 

পার্সটুডে/এসআইবি

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print