সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় গেল ম্যাচে হারায় হতাশ অজি কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার। সিরিজ জয়ে শেষটায় কোন ছাড় দিতে চান না তারা। অন্যদিকে, দীর্ঘ ৫ বছর পর নিজেদের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জয়ে মুখিয়ে আছে ইংলিশরাও। ম্যানচেস্টারে ম্যাচটি শুরু হবে বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায়।

সাউদাম্পটনে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ শুরু করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। ২৩১ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে যে ছন্দে শুরু করেছিলেন ফিঞ্চ তাতে মনে হচ্ছিলো ম্যাচটা বুঝি জিতেই যাচ্ছে অজিরা। কিন্তু হঠাৎই ছন্দপতন। মাত্র ৪ রানের ব্যবধানে চার উইকেট পড়ে যাওয়ায় মারাত্মক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে অজিরা।

সেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়ানো হয়নি অতিথিদের। ফলাফল সমতায় ফেরে ইংল্যান্ড। শেষ ওয়ানডে এখন অস্ট্রেলিয়ার জন্য মর্যাদার ম্যাচে পরিণত হয়েছে। কারণ হারলেই টি টোয়েন্টির মত সিরিজ হাতছাড়া। আর জিতলে সুযোগ থাকছে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয়ের।

দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটিং বিপর্যয়ে হতাশ কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার। সিরিজ শুরুর আগের দিন মাথায় আঘাত পেয়েছেন দলের ব্যাটিং লাইনআপের অন্যতম সেরা কাণ্ডারি স্টিভ স্মিথ। দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও তাকে পায়নি দল। তবে, শেষ ম্যাচে স্মিথের ফেরার আভাস দিয়েছেন কোচ। সবাই এক হয়ে লড়াই করলে জয় কঠিন হবে না বলে মনে করছেন অজি কোচ।

অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার বলেন, ‘দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আমরা এমনভাবে হারবো এটা ভাবতেই পারিনি। ব্যাটসম্যানরা ইংলিশ বোলারদের সামনে এক রকম অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে যেটা ঠিক হয়নি। তবে, ওরা ওদের ভুল বুঝতে পেরেছে। শেষ ম্যাচে সবাই পুরো দল হয়ে লড়াই করবে।’

ঘরের মাটিতে গেল পাঁচ বছর ধরে কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। সে আক্ষেপ ঘোচাতে মরিয়া স্বাগতিকরা। শেষ ওয়ানডেতে অজিদের দুর্গ গুড়িয়ে দেয়া বড় ভূমিকা রেখেছিলেন ক্রিস ওকস। অ্যারন ফিঞ্চ, মারনাস লাবুশানে ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের উইকেট নিয়ে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন তিনি। শেষ ম্যাচের আগে তাই আত্মবিশ্বাস বেড়েছে ওকসের। এ ম্যাচেও বল হাতে তাণ্ডব ছড়াতে প্রস্তুত তিনি।

অ্যারন ফিঞ্চ বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া বিপদজনক দল। ওদের বিপক্ষে জয় পাওয়া কঠিন। তবে, আমরা প্রস্তুত আছি। দলের সবাই ফর্মে আছে। আশা করছি জয় আমাদেরই হবে। গেল ম্যাচে বোলাররা যেভাবে দায়িত্ব পালন করেছে, সেভাবেই এ ম্যাচে বোলিং করতে চাই।’

গেল ম্যাচের একাদশে কোন পরিবর্তন আনতে চান না ইংল্যান্ড কোচ সিলভারউড।

 

 

 

 

 

 

 

সময় নিউজ

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print