ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে বাগেরহাট ও পটুয়াখালীতে বেড়িবাঁধ ভেঙে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। প্লাবিত হয়ে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার মানুষ। ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার পাশাপাশি ভেঙে যাওয়া বাঁধগুলো মেরামতের কথা জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

বাগেরহাট:

বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে দুই কিলোমিটার বেড়িবাঁধ ভেঙে বগী ও গাবতলা এলাকা তলিয়ে গেছে। এতে প্রায় তিন শতাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। জেলায় প্রায় সাড়ে চার হাজার ঘরবাড়ি ভেঙে পড়েছে। সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় সাড়ে তিনশ। এছাড়া ১৭শ’ হেক্টর ফসলি জমির পাশাপাশি সাড়ে চার হাজারের বেশি চিংড়ির ঘের পানিতে ভেসে গেছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে পল্লী বিদ্যুতের।

পটুয়াখালী:

ঘূর্ণিঝড় আম্পান আঘাত হানে উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালীতে। প্রবল বাতাসে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার কাঁচা-পাকা ঘর বাড়ি আংশিক ও সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন।

ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে ৬ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের দুইটি স্থান ভেঙে ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি রয়েছে কয়েক হাজার মানুষ। নদীতে পানি বিপদসীমার ১৭৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে শহর রক্ষাবাঁধ অতিক্রম করে জোয়ারের পানি ভেতরে প্রবেশ করে নতুন করে বাড়িঘর সহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তলিয়ে যাচ্ছে। ভেঙে যাওয়া বেড়িবাঁধ গুলো মেরামতের কথা জানালেন পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের এই শীর্ষ কর্মকর্তা।

 

 

 

 

সময় নিউজ

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print