২০১৯ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছেন যৌথভাবে তিনজন। তারা হলেন- ভারতীয় নাগরিক অভিজিৎ ব্যানার্জি এবং অ্যাস্থার ডাফলো ও মাইকেল ক্রেমার। বাংলাদেশ সময় বিকেলে সাড়ে ৩টায় সোমবার (১৪) রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করেন। অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ যৌথভাবে তাদের তিনজনকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া দ্বিতীয় বাঙালি হলেন অভিজিৎ ব্যানার্জি। ১৯৬১ সালে ভারতের মুম্বাই শহরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ১৯৮৮ সালে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন অভিজিৎ। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে (এমআইটি) অধ্যাপনা করছেন।

অন্যদিকে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া দ্বিতীয় নারী হচ্ছেন এস্থার দুফলো। তিনি অপর নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ ব্যানার্জির স্ত্রী। ১৯৭২ সালে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে জন্মগ্রহণ করেন এই অর্থনীতিবিদ। ১৯৯৯ সালে এমআইটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন দুফলো। বর্তমানে এমআইটিতেই অধ্যাপনা করছেন। এর আগে ২০০৯ সালে অর্থনীতিতে প্রথম নারী হিসেবে নোবেল পান অ্যালিনর অস্ট্রম।

অন্যদিকে এ বছর অভিজিৎ-দুফলো দম্পতির সঙ্গে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া আরেকজন হলেন মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার। তিনি ১৯৬৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯২ সালে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন এই অর্থনীতিবিদ। বর্তমানে হার্ভার্ডেই অধ্যাপনা করছেন। এবার নোবেল পুরস্কারের ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার (প্রায় আট কোটি টাকা) ভাগ করে নেবেন তারা।

১৯০১ সাল থেকে নিয়মিত নোবেল পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা, পদার্থ, রসায়ন, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতি- এ ছয়টি খাতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করে আন্তর্জাতিক নোবেল কমিটি।

 

 

 

 

বৈশাখী অনলাইন

প্রতিবেদনটি জনস্বার্থে প্রকাশ করা হলো

image_pdfimage_print